241543903 এর পিছনে গল্পটি কী? GOOGLE সার্চের একটি মজার বিষয়। || TIPSGURUBD.COM

0

আসসালামু আলাইকুম
➤ আশা করি সবাই ভালো আছেন।

💓

241543903 এর পিছনে গল্পটি কী?

আপনি যদি বিশ্বাস করেন যে এটা একটি সাধারন সংখ্যা মাত্র, তবে এই পোস্ট পড়ার পরে দৃষ্টি পরিবর্তন করতে হবে।

প্রথমে, আপনি নীচের নম্বরে Google একটি সার্চ করে দেখে নিনঃ

241543903

Freeze এ সবাই মাথা ঢুকিয়ে Pic তুলেছে… এমন Image দেখলেন ?




কয়েক মিলিয়ন মানুষ ফ্রিজে মাথা রেখে, এই মুহূর্তটিকে অমর করে দেয়।
পৃথিবী পাগল হয় নি, বা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি নয়। আসুন 241543903 নম্বরের রহস্যটি খুঁজে বের করি।
অনেক দাবি করেছেন যে এই নাম্বারের শুরু করেছেন [241543903 ] শিল্পী ডেভিড হরভিটস-[ American ]

…….

David Horvitz]

যিনি Photographi, Art Book এবং শিল্পের সাথে জড়িত শৈল্পিক প্রকল্প নিয়ে কাজ করতেন। একদিন ডেভিড তার ফ্রিজে তার মাথা দিয়ে নিজের ছবি তোলার মতো অদ্ভুত একটি কথা ভাবলেন।

এবং তিনি তার মাথা ফ্রিজারে ঢুকানো অবস্থায় ছবি তুলে তা ইন্সটাগ্রামে 241543903 এলোমেলো এই সংখ্যা গুলি দিয়ে পোস্ট করলেন। তবে ডেভিড হরভিটজ একা করে থামেনি, তিনি তাঁর বন্ধুদেরও একই কাজ করতে বলেছিলেন। এবং তার অনেক বন্ধুরাও সেই একই কাজ করলেন। তাদের দেখে আরো অনেকে করলেন। তাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছিল এমন ছবি ও সেম Caption. এটা প্রায় বিশ্বজুড়ে কয়েক মিলিয়ন লোক Follow করেছিল।

এই অদ্ভুত ছবিগুলো April 6th, 2009, David Horvitz এর মধ্যে দিয়ে Viral হয়েছিলো।

এটার মাধ্যমে তারা শুধু মজা করতে চেয়েছিলো সবার সাথে। আমরা জানি যে আমরা কীভাবে শিল্প পছন্দ করতে এবং অপছন্দ করতে পারি এবং এটি আমাদের প্রত্যেকের ব্যক্তিগত পছন্দের ব্যাপার,
তবে এই ক্ষেত্রে আমরা অবশ্যই অস্বীকার করতে পারি না যে ডেভিড হরভিটস অবশ্যই সংক্রামক শৈল্পিক সন্ধান করেছেন। যা অনেকের মাঝেই কৌতুহল তৈরি করতে সক্ষম হয়েছিলো।

The post 241543903 এর পিছনে গল্পটি কী? GOOGLE সার্চের একটি মজার বিষয়। appeared first on Trickbd.com.

Leave A Reply

Your email address will not be published.