ক্রোম-ফায়ারফক্সসহ বিভিন্ন ব্রাউজারে আক্রমণ করছে ম্যালওয়্যার || TIPSGURUBD.COM

0

 

বড়রকমের মালওয়্যার ঝুঁকিতে পড়েছে গুগল ক্রোম, মাইক্রোসফট এজ এবং মজিলা ফায়ারফক্স সহ জনপ্রিয় বেশ কিছু ওয়েব ব্রাউজার। মূলত এই মালওয়্যারগুলো বিভিন্ন সার্চে বিজ্ঞাপনের ছদ্মবেশে আসছে এবং ব্রাউজারে বিভিন্ন ম্যালিসিয়াস এক্সটেনশন যোগ করে ব্রাউজারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা অকার্যকর করে ফেলছে। সম্প্রতি মাইক্রোসফটের একদল গবেষক জানিয়েছে, মজিলা ফায়ারফক্স ব্রাউজার ব্যবহারকারীরা নতুন এই অ্যাডরোজেক ম্যালওয়্যার আক্রমণের ঝুঁকিতে রয়েছেন সবচেয়ে বেশি।

গ্যাজেট ৩৬০ এর এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, মাইক্রোসফট তাদের একটি ব্লগ পোস্টে এই ম্যালওয়্যারের আক্রমনের রেকর্ড তুলে ধরেছে যা থেকে দেখা যাচ্ছে মে থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রায় দশ লক্ষাধিক বার পুরো পৃথিবী জুড়ে এই ম্যালওয়্যার ক্যাম্পেইন আক্রমণের শিকার হয়েছে। এছাড়াও মাইক্রোসফট প্রায় ১৫৯ টি নতুন ডোমেইন ট্র্যাক করেছে যার প্রতিটির ১৭,৩০০ টি হোস্টেড ইউআরএল রয়েছে, যা প্রায় ১৫,৩০০ টি ইউনিক পলিমরফিক ম্যালওয়্যার স্যাম্পল ছড়িয়েছে‌।

 

তাছাড়া বিভিন্ন ম্যালিসিয়াস ব্রাউজার এক্সটেনশন ব্রাউজারে প্রবেশ করানোর মাধ্যমে এই ধরনের ম্যালওয়্যার ব্রাউজারের সেটিংস পাল্টে দেয় যার জন্য ওয়েব পেইজে বিজ্ঞাপন দেখানো যায়। অ্যাডরোজেক নামের এই ম্যালওয়্যার ব্রাউজারের নিরাপত্তা ফাংশন বন্ধ করে দেয় এবং ব্যবহারকারীর ব্রাউজিং এক্সপেরিয়েন্সকে পুরোপুরি ঝুঁকির মুখে ফেলে দেয়। এ ধরনের সেটিংসের পরিবর্তন সাধারণ ইউজারদের পক্ষে বোঝা কিংবা খুঁজেও পর্যন্ত সম্ভব না বলা জানিয়েছে মাইক্রোসফট এর গবেষক দল।

মাইক্রোসফট গবেষকদের মতে, “প্রতিটি ব্রাউজারে বিভিন্ন এক্সটেনশন লক্ষ্য করে এই ম্যালওয়ার এক্সটেনশনে কিছু ম্যালিসিয়াস স্ক্রিপ্ট যুক্ত করে তারপর এটি ব্রাউজারগুলোর মতো হ্যাশ গণনা করে এবং সে নিজের মতোই সুরক্ষা সিকিউরিটি প্যাচ আপডেট করে। তবে অ্যাডরোজেক এক্ষেত্রে মূলত আরও একধাপ এগিয়ে থাকা মালওয়্যার, যা গিয়ে সেই ইন্টেগ্রিটি চেক করা ফাংশনকেই প্যাচ করার মাধ্যমে ব্রাউজারের সেটিংসে ইচ্ছামতন পরিবর্তন ঘটায় এবং ব্রাউজারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা অকার্যকর করার মাধ্যমে ব্রাউজার ব্যবহারকারীকে ঝুঁকির মুখে ফেলে দেয়।

বন্ধুদের সাথে নিউজটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂

Leave A Reply

Your email address will not be published.