আপত্তিকর কমেন্ট বন্ধ করতে কাজ করছে ইউটিউব || TIPSGURUBD.COM

0

 

এই মুহুর্তে বিশ্বের সবথেকে বড় ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম হলো ইউটিউব। গুগল মালিকানাধীন এই প্লাটফর্মটিতে গান-বাজনা, সিনেমা থেকে শুরু করে পড়াশোনা, ভ্লগ, রান্নাবান্না ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ের ভিডিও দেখা যায়। প্রতিনিয়তই শত শত ভিডিও আপলোড হয় ইউটিউবে। আর এই সবগুলো ভিডিওতে দর্শকদের সমর্থন পেলেও অনেকেই আবার বিভিন্ন ভিডিও ক্রিয়েটরদের টার্গেট করে সবসময়ই কুৎসা রটানোয় ব্যস্ত থাকেন।

বিভিন্ন ইস্যুকে কেন্দ্র কমেন্টে ইউটিউবারদের আজে-বাজে কথা থেকে শুরু করে গাল-মন্দও করেন অনেক ইউজার। ইউটিউবের দাবি, এসব কটূ কমেন্ট শুধু একজন ইউটিবারকে নিরুৎসাহিতই করে না, বরং ইউটিউব কমেন্ট সেকশনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। তাই প্লাটফর্মটিতে আপত্তিকর কমেন্ট ঠেকাতে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ। ইনস্টাগ্রামের পর এবার ইউটিউবেও অফেন্সিভ কমেন্ট রোথের উদ্যোগ নিয়েছে মার্কিন টেক জায়ান্ট গুগল।

 

একটি ব্লগ পোস্টে কোম্পানি জানিয়েছে, এখন থেকে কোনো ইউজার কমেন্ট বক্সে আপত্তিকর কোনো মন্তব্য করলে তাকে একটি পপ-আপ ব্যানারে সতর্কবার্তা দেখানো হবে। এবং এসব আপত্তিকর কমেন্ট ‘ফ্ল্যাগ’ করে দেওয়া হবে। তাছাড়া এটি যেহেতু সম্পূর্ণ এআই বেজ্ড অটোমেটেড একটি ফিচার, তাই এখানে একটি সম্ভাবনা রয়েছে ভুলবশত সাধারণ একটি কমেন্টকেও আপত্তিকর মনে করে ‘ফ্ল্যাগ’ করে দেবার। যদি ইউজারের মনে হয় যে ইউটিউব ভুলবশত তার কমেন্টকে আপত্তিকর হিসেবে মনে করছে, তবে তিনি ‘let us know’ অপশন থেকে রিপোর্ট করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, একজন ইউজারের কমেন্ট আপত্তিকর না হলেও তা যদি কোনো সম্প্রদায় কিংবা জাতির প্রতি উদ্দেশ্যমূলক আক্রমণ হয় তবে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে নামিয়ে নিবে। এ বিষয়টি স্পষ্ট করে ব্লগ পোস্টে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ বলেছে, আমরা আমাদের এআই মেশিন লার্নিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে ইতোমধ্যে এমন সব কমেন্ট খুঁজে বের করছি যা আমাদের প্লাটফর্মের নীতিমালার পরিপন্থী। ইউটিউব আরও বলেছে, আমাদের এই প্রোগ্রামটি এখনো প্রক্রিয়াধীন অবস্থায় রয়েছে আমরা অফেন্সিভ কমেন্টগুলো এখনো রিভিউ করে দেখছি।

বন্ধুদের সাথে নিউজটি শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা অনুপ্রাণিত হব 🙂

Source:
ইউটিউব

Leave A Reply

Your email address will not be published.